মঠবাড়িয়া পৌর শহরের প্রধান সড়কে জনদুর্ভোগ নির্মাণ দাবিতে বিক্ষুব্দ পৌরবাসির মাববন্ধন

Sharing is caring!

মঠবাড়িয়া  সংবাদদাতা >>>
পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার প্রথম শ্রেণীর পৌরসভার প্রধান সড়কের বেহাল দশায় জনজীবন অতিষ্ট হয়ে উঠেছে। দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে বেহাল সড়কের দুর্ভোগে পৌর নাগরিকরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন। আজ বৃহস্পতিবার ভূক্তভোগি পৌরবাসি বেহাল সড়কে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে বেহাল সড়ক দ্রæত নির্মাণের দাবি জানান।
মঠবাড়িয়া উপজেলা রিকশা-ভ্যান-অটো মালিক শ্রমিক ইউনিয়নের ডাকে পৌরভবনের সম্মূখ সড়কে বেহাল সড়ক অবরোধ করে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে।
শেষে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মো. আরিফ-উল-হক, মঠবাড়িয়া প্রেস কাব সভাপতি মো. জাহিদ উদ্দিন পলাশ, উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মো. নাজমুল আহসান কবির, উপজেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মো. কামরুল আকন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মো. আলাউদ্দিন আল আজাদ প্রমূখ।

স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, চরখালী-পাথরঘাটা ৬০ কিলোমিটার মহাসড়কের মঠবাড়িয়া প্রথম শ্রেণীর পৌরসভার ভেতর ১ হাজার ৬৬০ মিটার রাস্তাটি একটি ব্যস্ততম সড়ক। সড়কটি প্রশস্ত করণে ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে একনেকে ১০৮ কোটি টাকা অনুমোদন দেওয়া হয়। ওই প্রকল্পে এ মহাসড়কের উন্নয়ন কাজ গত পাঁচমাস আগে শেষ হলেও কেবল মঠবাড়িয়া পৌরসভার ভেতর রাস্তার ওই অংশটুক নির্মাণ কাজ বন্ধ থাকে। অথচ পৌরশহরের এ সড়কটি গত ১৫ বছর ধরে চরম বেহাল অবস্থা বিরাজ করে আসছে। মঠবাড়িয়া-চরখালী মহাসড়ক উন্নয়নের চলমান কাজের সাথে পৌরসভার ওই অংশটুকুর রাস্তার সংস্কার হওয়ার কথা ছিল। ওই রাস্তাটুকু একনেকের চলমান প্রকলপ হতে রহস্যজনক কারনে স্থানীয় সংসদ সদস্যের সুপারীশক্রমে আরসিসি ঢালাই রাস্তা করার নকশা পরিবর্তন হয়। ফলে শহরের ব্যস্ততম রাস্তাটির উন্নয়ন কাজ স্থবির হয়ে পড়ে।

সমাবেশে বক্তারা আগামী ১৫ দিনের মধ্যে মঠবাড়িয়া পৌর শহরের প্রাণকেন্দ্র বহেরাতলা হতে থানাপাড়া সেতু পর্যন্ত এক কিলোমিটার বেহাল সড়ক নির্মাণের জোর দাবি জানান। উল্লেখিত সময়ের মধ্যে বেহাল সড়ক নির্মাণ না হলে কঠোর আন্দোলনের ঘোষণা দেন।

রফিকুজ্জামান আবীর
মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) সংবাদদাতা
৯ জানুয়ারি
ছবি আছে

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook
YouTube
error: Content is protected !!