ইস্তিরি ছাড়াই কাপড়ের ভাঁজ দূর করুন

কুঁচকানো বা ভাঁজ পড়া কাপড় পরতে কারুর ভালো লাগে না। কিন্তু সবসময় ইস্তিরি করতেও সময় হয় না বা মন চায় না। তবে কিছু ট্রিকস জানা থাকলে কুঁচকানো কাপড়ও দেখতে ফিটফাট লাগতে পারে। কীভাবে তা সম্ভব চলুন জেনে নেয়া যাক।
ভিনিগারের কল্যাণে কষ্ট ছাড়াই ফিটফাট
একটি স্প্রে করার বোতলে এক ভাগ ভিনিগার আর তিনভাগ গরম পানি ভরে নিন। এবার আপনার টি-শার্ট বা যে কোনো পোশাকের পুরোটাতে ভালো করে বোতলের পানি দিয়ে স্প্রে করে নিন। টি-শার্টটি শুকিয়ে যাবার পর দেখবেন কোথাও কুঁচকানো ভাব বা ভাঁজ নেই। শুধু তাই নয় ভিনিগারের কোনো গন্ধও থাকবেনা টি-শার্টে। টি-শার্ট পরে আয়নায় দেখুন, কেমন ফিটফাট লাগছে!
ড্রায়ার মেশিন
আপনার বাইরে বেরুতে হবে, কাপড় পাল্টাতে হবে? যে শার্টটা আপনি এখন পরতে চান সেটা কিছুটা কুঁচকানো? তাড়াহুড়ো করে ইস্তিরি করাও সম্ভব নয়? এক কাজ করতে পারেন, স্প্রে করার বোতলে পানি ভরে স্প্রে করে নিন। এবার স্বাভাবিক তাপে মাত্র দশ মিনিটের জন্য ড্রায়ারে ঢুকিয়ে অন করে দিন। আপনি তৈরি হয়ে নিন, এর মধ্যে শার্টটাও হয়ে যাবে। এবার সোজা মেশিন থেকে শার্টটা বের করে পরে নিন। দেখবেন কোথাও কোনো ভাঁজ আপনার চোখে পড়বেনা।
বিকল্প ট্রিকস
এক মুঠো বরফের টুকরো ভাঁজ পড়া কাপড়সহ ড্রায়ারে ঠুকিয়ে দিন, এবার ড্রায়ারটি সবচেয়ে বেশি তাপে মাত্র পাঁচ মিনিট চালিয়ে দিন। দেখবেন গরম ভাপে কেমন ম্যাজিকের মতো তাড়াতাড়ি কাপড়ের ভাঁজগুলো চলে গেছে।
হেয়ার ড্রায়ারের ট্রিকস
যে পোশাকটি পরতে চান সেটি একটি হ্যাঙ্গারে ঝুলিয়ে দিয়ে কাপড়ের ভাঁজে পানি স্প্রে করি দিন। তারপর হেয়ার ড্রায়ারের তাপ একদম কমিয়ে দিয়ে কাপড়ের ওপর কিছুক্ষণ ধরে রাখুন। তাকিয়ে দেখুন, সব ভাঁজ উধাও!
বাথরুমে গরম পানির ভাপ
গোসল করতে হবে আবার শার্টটাও ইস্তিরি করতে হবে, অথচ সময় নেই? এই অবস্থায় ভাঁজ করা শার্ট বা অন্যকিছু বাথরুমের কোথাও ঝুলিয়ে রেখে দিন। এবার গরম আর ঠাণ্ডা পানি মিশিয়ে আরাম করে গোসল করে নিন। গোসল শেষে দেখবেন গরম পানির ভাপে শার্টের সব ভাঁজ সোজা হয়ে গেছে।-ডয়েচে ভেলে।
Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook
YouTube
error: Content is protected !!