রাখাইনে সহিংসতায় উস্কানি, দায় স্বীকার ফেসবুকের

মিয়ানমারে  নিধন শুরুর আগে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে নানা গুজব ও প্রোপাগাণ্ডা ছড়ানো হয় ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এসব বন্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে নিজেদের ব্যর্থতার কথা স্বীকার করেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। খবর রয়টার্সের।
এ বিষয়ে রয়টার্সের এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে ফেসবুককে অভিযুক্ত করার একদিন এ স্বীকারোক্তি দিল ফেসবুক।
বৃহস্পতিবার দেয়া এক বিবৃতিতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বলে, ‘আমরা তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিতে পারিনি। তবে এখন বার্মিজ ভাষায় পারদর্শী কর্মী নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। আমরা প্রোপাগান্ডা ঠেকাতে নতুন প্রযুক্তি নিয়ে আসছি।’
‘মিয়ানমারের জাতিগত সহিংসতার ঘটনা ভয়ানক। তবে ঘটনার আগে ঘৃণা ছড়ানো বন্ধে আমরা দেরি করেছি।’
বর্তমানে ফেসবুক ব্যবহার করে ঘৃণা ছড়ানো বন্ধে মিয়ানমারে কোন স্থায়ী কর্মী নেই ফেসবুকের। মালয়েশিয়া আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে এটি করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook
YouTube
error: Content is protected !!