মঠবাড়িয়ায় গৃহকর্মীকে দলবেধে ধর্ষণ, থানায় মামলা

মঠবাড়িয়া সংবাদদাতা >>> পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় দলবেধে গৃহকর্মী ধর্ষণের ঘটনায় পাঁচ বখাটে যুবকের বিরুদ্ধে মঠবাড়িয়া থানায় মামলা হয়েছে। রবিবার রাতে ধর্ষিত ওই গৃহকর্মী বাদী হয়ে উপজেলার দাউদখালী গ্রামের সাতঘর এলাকার বখাটে যুবক আফজাল খানের ছেলে সুমন মিয়া, ছালাম হাওলাদারের ছেলে ইমরান হাওলাদার ও জিয়াম হাওলাদারের ছেলে রাজু হাওলাদারসহ আরও অজ্ঞাত দুইজনকে আসামী করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।
মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, আসামীরা প্রায়ই পথে ঘাটে ওই গৃহকর্মী যুবতীকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। ঘটনার দিন শুক্রবার সন্ধ্যা রাতে ধর্ষিত ওই মেয়েটি গৃহপরিচারিকার কাজের জন্য নিজ বাড়ি থেকে পার্শবর্র্তী দেবত্র গ্রামে আজাদুর রহমানের বসত ঘরে গৃহপরিচারিকার কাজে যাচ্ছিলেন। এসময় পথ থেকে আসামীরা মেয়েটিকে মুখ চেপে জোর পূর্বক ইউনিয়ন সরকারী স্বাস্থ্য সেবা কিনিকের ছাদের উপর নিয়ে যায়। সেখানে ওড়না দিয়ে মুখ বেধে প্রথমে বখাটে ইমরান হাওলাদার মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। পরে সুমন খান ও রাজু হাওলাদার সাথে আরও দুই সহযোগীকে নিয়ে মেয়েটিকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। রাত দেড়টার দিকে মাছ ধরতে যাওয়া এক লোক আসামীদের কথা শুনে সন্দেহ হলে ছাদে গিয়ে টর্চলাইট মারলে আসামীরা ওই গৃহকর্মীকে ফেলে রেখে দৌড়ে পালিয়ে যায়।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আব্দুল্লাহ মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মেয়েটি পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য আজ সোমবার পিরোজপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ে পাঠানো হবে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook
YouTube
error: Content is protected !!